Esophagus model

খাদ্যনালীর ক্যানসার হলে করণীয়

খাদ্যনালীর ক্যানসার হলে করণীয়

  • পাকস্থলীর এসিড খাদ্যনালীর সংস্পর্শে এলে খাদ্যনালীর ভিতরের স্তরের গাঠনিক পরিবর্তন হতে থাকে। দীর্ঘদিন এ অবস্থা চলতে থাকলে ক্যানসারের পূর্বের অবস্থায় পৌঁছায় (precancerous conditions)। এ অবস্থাকে ডাক্তারি ভাষায় ব্যারেট ইসোফেগাস (Barrett’s esophagus) বলে। খাদ্যনালীর ক্যানসারের ঝুঁকি এড়াতে তাই পাকস্থলীর এসিড রিফ্লাক্সের চিকিৎসা করাতে হবে।
  • খাদ্যনালীর ক্যানসারের শুরুর দিকে যেহেতু তেমন কোন লক্ষণ থাকে না তাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে শেষ পর্যায়ে এসে লক্ষণ প্রকাশ পায়। ততদিনে অনেক দেরী হয়ে যায়। তাছাড়া খাদ্যনালীর ক্যানসার থেকে পুরোপুরি নিরাময় খুব দুরূহ। তাই ক্যানসার ধরা পড়লে এখন এটি কোন পর্যায়ে আছে, এর চিকিৎসা, চিকিৎসার ফলাফল কী হতে পারে (prognosis) ইত্যাদি ভালোভাবে ডাক্তার থেকে জেনে নিতে হবে। 
  • খাদ্যনালীর ক্যানসারের ক্ষেত্রে অপারেশন, কেমোথেরাপি, রেডিওথেরাপির আগেপরে খুব গুরুত্বপূর্ণ উচ্চ ক্যালরি ও পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ খাবার। একজন পুষ্টিবিদ এ ব্যাপারে ভালো পরামর্শ দিবেন।
  • সোশ্যাল মিডিয়া বা অন্য কোথাও ক্যানসারে আক্রান্তদের সাপোর্ট গ্রুপ থাকলে যোগ দিতে পারেন। বিভিন্ন ধরনের তথ্য, সময়ে-অসময়ে সহযোগিতা পাবেন, অন্যরা কীভাবে ক্যানসারের সাথে লড়াই করছে জানতে পারবেন। আপনার সুবিধা-অসুবিধার কথা সেসব গ্রুপে শেয়ার করতে পারেন।
  • খাওয়ার সময় ব্যথা, খাবার গলায় আটকে গেলে বা অন্যকোন সমস্যায় দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিন।
  • শ্বাসকষ্ট, জ্বর হলে, কফ বা বমির সাথে রক্ত গেলে বিলম্ব নয়, ডাক্তারের পরামর্শ নিন। প্রয়োজনে জরুরি বিভাগে যোগাযোগ করুন।
  • ডাক্তারের পরামর্শ নিন ক্ষুধামন্দা বা খাবার খেতে না পারলে, দ্রুত ওজন হারাতে থাকলে (ওজন হ্রাস)
  • ধূমপান ও মদ্যাপান খাদ্যনালীর ক্যানসারের প্রধান ঝুঁকি। তাই পরিত্যাগ করুন।
  • জেনারেল প্র্যাকটিসনার, সার্জন, অনকোলজিস্ট (ক্যানসার বিশেষজ্ঞ), প্যালিয়েটিভ কেয়ারের রুটিন ভিজিট, এপয়েন্টমেন্ট থাকলে কোন ভাবেই যেন মিস না হয়। 

Dr Omar Faruq MBBS BCS (Health)

Follow us

Don't be shy, get in touch. We love meeting interesting people and making new friends.