প্রসব পরবর্তী বিষণ্ণতা বা পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশন

প্রসব পরবর্তী বিষণ্ণতা বা পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশন

যদিও ১০০ জনের মধ্যে ১০ জন কিংবা তার ও বেশি মায়েরা প্রসব পরবর্তী বিষাদে ভুগে থাকেন, তবুও এটা আমাদের সমাজে খুবই অবহেলিত একটা বিষয়। নতুন অতিথির স্বাস্থ্যের ব্যাপারে অতিমাত্রায় সচেতন থাকলেও আমরা নতুন মা হওয়া মানুষটার কথা ভুলে যাই,ভুলে যাই কি পরিমাণ শারীরিক এবং মানসিক পরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

কখন বুঝবেন আপনি প্রসব-পরবর্তী বিষণ্ণতা বা পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশনে ভুগছেন

নতুন মায়েদের মানসিক অবসাদ মাঝে মাঝে মারাত্নক আকার ধারণ করতে পারে,তাই যদি শুরুতেই তা নির্ণয় করা যায় এবং সে অনুযায়ী চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া যায় তাহলে এই হতাশা অনেকাংশেই কমে আসে। সবার প্রথমে মনে রাখতে হবে, প্রসব পরবর্তী বিষণ্ণতা বা পোস্ট পারটাম ডিপ্রেশনে অনেক মায়েরা ভুগে থাকেন এবং এই অবসাদ থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য চাওয়ায় কোন লজ্জা নেই। তাই নিচের লক্ষণগুলো দেখা দিকে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের জানান এবং চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন

১)প্রচন্ড শারীরিক অবসাদ

২)বেশিরভাগ সময় মেজাজ খিটখিটে থাকা

৩)অল্পতেই চোখে জল আসা

৪)সারাক্ষণ অপরাধবোধে ভোগা

৫)ঘুমের ব্যাঘাত

৬)সিদ্ধান্তহীনতা

৭) মা হিসেবে নিজেকে অযোগ্য মনে হওয়া

৮)অসহায় বোধ করা

৯)বাচ্চার কিংবা নিজের ক্ষতি করার ভয়ে থাকা

১০)কাছের মানুষজনের সাথে খারাপ ব্যবহার করা।

১১)অমনোযোগী থাকা

১২) সবসময় দ্বিধান্বিত থাকা

একজন শিশুর যখন জন্ম হয়,তার সাথে জন্ম হয় নতুন একজন মায়ের। তার প্রতি আমাদের সমান মনোযোগ এবং স্নেহ দেয়া উচিত। বাচ্চার সকল দায়িত্ব মায়ের উপর চাপিয়ে না দিয়ে কাজগুলো পরিবারের সকলে মিলে ভাগ করে নিন। এক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারেন সন্তানের বাবা। বাইরের কাজের পাশাপাশি স্ত্রী- সন্তান কে সময় দিন,মানসিক সাপোর্ট দিন। পরিবারের সকল সমান অংশগ্রহণে শিশু বেড়ে উঠুক।

Dr Punam Palit MBBS BCS (Health)

Add comment