রক্ত গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণ আর ডায়েট

ডায়েবেটিস হলে স্বাস্থ্যকর আহারের যে পরিকল্পনা তা যাদের ডায়ে বেটস নাই তাদের চেয়ে ভিন্ন এমন নয় । আমেরিকান ডায়েবেটিস সমিতি যে ডায়েট নীতি সূত্র বলেছেন সাধারণ মানুষের জন্য তা হল ফল , সবজি , হোল গ্রেন , মটর শুটি , ডাল , কম চর্বি দুধ জাত দ্রব্য কে ঘিরে খাবার ।
তবে শ্বেত সার গ্রহনের ব্যাপারে বিশেষ নজর দিতে হবে ।
সবজি , ফল , লাল চাল , লাল আটা , ও ট , বার্লি র মধ্যে যে পুষ্টি তা পরিশোধিত শর্করা থেকে অনেক বেশি , এছাড়া এতে আছে আঁশ ।
বেশির ভাগ ডায়ে বে টি স রোগীর ক্ষেত্রে মোট ক্যালোরির ৪৫ -৫৫ শতাংশ হতে হবে শর্করা । শর্করা বেছে নিতে হয় বিজ্ঞোচিত ভাবে
সব্জি , ফল আর হোল গ্রেন । পরিশোধিত শর্করা যেমন ময়দার রুটি । পাস্তা , মিলের চালের ভাত , ক্যান্ডি , কোমল পানীয় , মিঠাই এড়িয়ে চলতে হবে । পরিশোধিত শর্করা রক্তে গ্লুকজ তুঙ্গে তুলে আর রক্তে ট্রাই গ্লিসারাইড মান বাড়ায় ।
আশ আসে দুভাবে ঃ অদ্রবণীয় আঁশ । হোল গ্রেনে আছে এমন আঁশ
দ্রবণীয় আঁশ আছে বিনস , হোল গ্রেন ,শুকনো মটর , ও ট আর ফলে
দ্রবণীয় আঁশ রক্ত গ্লুকোজ কমায় ইনসুলিন সংবেদন শীলতা বাড়িয়ে , তাহলে ডায়ে বে টি স মেডিসিনের চাহিদা কমে যায় । অনেক গুলো গবেষণায় দেখা যায় যথেষ্ট আঁশ গ্রহনে হার্টের রোগের ঝুঁকি কমে আর
ডায়ে বে টি স রোগীদের ঝুঁকি কমাতে যা যা দরকার সব করা উচিৎ ।

Prof Dr Subhagata Choudhury

Ex Principal Chittagong Medical College
Ex Dean Medicine, Chittagong University
Ex Director, Lab Service, BIRDEM

Add comment