screening-test-women-mammography-

নারীদের জন্য অবশ্য করণীয় কিছু স্ক্রিনিং টেস্ট

সেই মূল্যবান কথা: An ounce of prevention is worth a pound of cure. আগে ভাগে চেক আপ করলে রোগ থাকলে ধরা পড়ে আগে, রোধ করা যায় ক্যান্সার, ডায়াবেটিস, অস্টিওপরোসিস যখন এরা অনেক বেশি চিকিৎসা সাধ্য।

স্ক্রিনিং টেস্ট অসুখের সন্ধান দেয় উপসর্গ হবার আগেই। কোন স্ক্রিনিং টেস্ট ( screening test) করা দরকার তা নির্ভর করে বয়স, জেন্ডার, পারিবারিক ইতিহাস, নিজের স্বাস্থ্য ইতিহাস আর অন্যান্য ঝুঁকির ওপর।

আমরা জানি মেডিক্যাল স্ক্রিনিং জীবন বাঁচায়। আগে ভাগে চিহ্নিত হলে ১০০% কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধ হয়। ৫০-৬৯ বছরের নারীদের নিয়মিত ম্যামোগ্রাম কমায় ৩০% স্তন ক্যান্সার।

১। স্তন ক্যান্সার

  • নিজের স্তন স্নানাগারে নিজে নিরীক্ষণ (breast self examination)
  • সন্দেহ হলে ডাক্তার দেখিয়ে ক্লিনিকেল ব্রেস্ট এক্সাম করান, পরামর্শ নিন
  • স্ক্রিনিং-এর জন্য আছে ম্যামোগ্রাফি। ৪০ বছর থেকে এক বা দুই বছরে এক বার করান। দেশে শুরু করা উচিত ৩৫ বছর বয়স থেকে। ঝুঁকি থাকলে আরো বেশি বার করতে হতে পারে ডাক্তারের পরামর্শে।

২। জরায়ু ক্যান্সার

  • প্যাপস স্মিয়ার: জরায়ু মুখ ক্যান্সার স্ক্রিনিং
  • জরায়ু মুখ ক্যান্সার রোধে টিকা এইচপিভি টিকা
  • এরপর রুটিন জরায় মুখ ক্যান্সার স্ক্রিনিং দরকার
  • ৩০ এর উপর বয়স হলে দুই বা তিন বছর পর পর।

৩। অস্টিওপরোসিস আর হাড় ভাঙ্গা

বোন ডেনসিটি টেস্ট, স্ক্রিনিং হল ডিএক্সরে। বিশেষ এক্সরে। ডুয়াল এনার্জি এক্সরে এবসরপশিওমেট্রি (dual energy x-ray absorptiometry, সংক্ষেপে DEXA)

৪। ত্বক ক্যান্সার

ত্বকে অস্বাভাবিকতা নিজে নিরিক্ষণ বা বিশেষজ্ঞের সাহায্যে আকার, আকৃতি, রং, আঁচিল, ফাটল।

৫। উচ্চ রক্তচাপ

  • হার্টের রোগ, স্ট্রোক আর কিডনি রোগের জন্য দায়ী উচ্চ রক্তচাপ।
  • চেক করে দেখুন পরিমাপ: সিস্টোলিক, ডায়াস্টোলিক।
  • এক বছর পর পর দেখুন, ১৮ বছর বয়স থেকে শুরু। আর উচ্চ রক্তচাপ থাকলে বার বার।

৬। কোলেস্টেরল মাত্রা

লিপিড প্রোফাইল: কোলেস্টেরল, ট্রাইগ্লিসারাইড, এইচডিএল, এলডিএল।

৭। টাইপ ২ ডায়াবেটিস

ডায়াবেটিস স্ক্রিনিং। খালি পেটে রক্তের নমুনাতে গ্লুকোজ ১০০-১২৫ মিলিগ্রাম /ডিএল হলে প্রাক ডায়াবেটিস; ১২৬ বা বেশি হলে ডায়াবেটিস। এছাড়া আছে আহারের দু ঘণ্টা পর রক্তের নমুনাতে গ্লুকোজ, আর এইচবিএ১সিওজিটিটি ডাক্তারের পরামর্শে ।

৮। এইচআইভি

এইচআইভি স্ক্রিনিং এলাইজা (ELISA) বা ইআইএ।

৯। কলোরেকটাল ক্যান্সার

স্ক্রিনিং কোলনোস্কোপি। ৫০ বছর থেকে প্রতি ১০ বছরে একবার।

১০। গ্লুকোমা

গ্লুকোমা স্ক্রিনিং করবেন চক্ষু চিকিৎসক।

Prof Dr Subhagata Choudhury

Ex Principal Chittagong Medical College
Ex Dean Medicine, Chittagong University
Ex Director, Lab Service, BIRDEM

Add comment