স্বাস্থ্য নিয়ে পুরুষদের ভুলভ্রান্তি

১। ডাক্তার দেখাতে অনীহা

জানেন পুরুষ যে ওজন কমাতে বিয়ার পান বন্ধ করা, পটেটো চিপ্স চিবানো বন্ধ করতে হবে। বেশ আছি কি দরকার। ডাক্তারকে দেখানো কেন ? চেক আপ নাই প্রয়োজন ।

২। আমার কি আর হার্ট এটাক হবে এই বয়সে?

মনে করে বাবা আর দাদুর হয়েছে আমার কি আর হবে ? ৩০ মাত্র আরে না। হার্ট এটাক পরিবারে থাকলে ৩০ বছরেও হতে পারে।

৩। নাক ডাকে, ডাকুক

রাতে যেন কাঠের ফালিতে করাত চালু হল। ঘর ঘহর। অনেক পুরুষের মন নাসিকা গর্জনের কারন হল অব সটরাকটিভ স্লিপ এপ নিয়া। মাঝে মাঝে শ্বাস অবরোধ আর এর সাথে যুক্ত থাকতে পারে উচ্চ রক্ত চাপ।

৪। সানস্ক্রিন কি দরকার

গলফ খেলা বা বিচে সান বাথ কেন এমনি বাইরে রোদে গেলে এসপিএফ ৩০ সানস্ক্রিন মেখে বেরুনো উচিত । বেশি খররোদ অনেকক্ষণ হতে পারে সমস্যা।

৫। সঙ্গম অক্ষম সাহায্য নিতে অনীহা

কেন লজ্জা? শয্যা সমস্যা সব সময় পুরুষত্বের সমস্যা কেন হবে? হয়ত মনের অবস্থা এর কারণ। যা হোক ডাক্তারের পরামর্শ নেয়া সমীচীন।

৬। মন খারাপ

বিষণ্ণতা নারীদের সমস্যা এমন এক ধারণা । কিন্তু অনেক পুরুষের হয় ধারণা। আর এজন্য মদ্য পান , ধুম পান নেশা এসব করে অনেকে। এতে বিষণ্ণতা বাড়ে আর এর চিকিৎসা হয় কঠিন।

৭। বার বার বাথরুম

ক’বার যাওয়া হল বাথরুমে? দিনে ৮ বারের বেশি গেলে আর রাতে দুবারের বেশি গেলে সমস্যা হতে পারে। প্রোস্টেট ? মূত্রথলি অতি সক্রিয়? অন্য কিছ? ডাক্তার দেখান।

৮। মুখ বন্ধ রাখা

দাঁতের চেক আপে খুব অনিহা।

৯। কেবল মাংস আর আলু পছন্দ

ফল সবজি খেতে চায় না তাই হেলদি ডায়েট খাওয়া হয় না।

১০। মজা করতে পছন্দ

মদ খেলাম, ফুরতি লাফ দিলাম, ধূমপান, জুয়া, এসব করতে মজা। অর্থ যায়, স্বাস্থ্য যায়।

Prof Dr Subhagata Choudhury

Ex Principal Chittagong Medical College
Ex Dean Medicine, Chittagong University
Ex Director, Lab Service, BIRDEM

Add comment